তালিকা থেকে নাম বাদ পড়ায় মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু

নওগাঁর ধামইরহাটে যাচাই-বাচাই তালিকা থেকে নাম বাদ পড়ার খবর শুনে সাহার উদ্দীন নামের এক মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের দাবি, প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হবার পরও তালিকা থেকে নাম বাদ পড়ার খবরেই স্ট্রোক করে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি উপজেলার নেওটা গ্রামে ঘটেছে। মৃত সাহার উদ্দিন ওই এলাকার মৃত নয়েজ উদ্দীনের ছেলে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুইয়ারি নওগাঁর ধামইরহাটে সাধারণ গেজেটভুৃক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা ৮৯ জনের মধ্যে ৩২ জনকে পাশ ও ৫৭ জনকে ফেল দেখিয়ে তালিকা প্রকাশ করেন উপজেলা প্রশাসন। ওই তালিকায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সাহার উদ্দীনের নামও বাদ পড়ে। 

দীর্ঘ ১১ বছর পর এবছর উপজেলা পর্যায়ে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাইয়ে নাম বাদ পড়ে। এ খবর শোনার পর অসুস্থ হয়ে পড়েন মুক্তিযোদ্ধা সাহার উদ্দীন। বেলা ১১টায় তার মেয়ের বাড়িতে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যু হয় তার । তিনি পাঁচ মেয়ে, এক ছেলে ও স্ত্রীকে নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে গর্বের সাথেই জীবনযাপন করতেন। মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তিনি প্রথম থেকেই সরকারি সুবিধা ভোগ করে আসছেন। যার গেজেট নাম্বার ৩০৩৪।

সাহার উদ্দিনের ছেলে দেলোয়ার কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, আমার বাবা একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা। ছোটবেলা থেকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তার মুখে অনেক শুনেছি।

এ বিষয়ে যুদ্ধকালীন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ফরমুদ হোসেন জানান, সাহার উদ্দীন ছিলেন একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা। তার নাম এভাবে তালিকা থেকে বাদ দেয়ার বিষয়টি সে সহ্য করতে পারেননি। একজন মুক্তিযোদ্ধার উপর এটি অবিচার বলে মনে করেন তিনি।

মুক্তিযোদ্ধার তালিকা থেকে নাম বাদ পড়ার পর আবার ওই মুক্তিযোদ্ধাকেই রাষ্ট্রীয় মর্যাদা দেওয়ার বিষয়টি কতটা যুক্তিযুক্ত এ বিষয়ে জানতে উপজেলা প্রশানের সাথে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তা সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য লিখুন :