কয়েদির দর্শনার্থীদের জন্য বিশ্রামাগার নির্মাণের উদ্যোগ

কুড়িগ্রাম জেলা কারাগারে কয়েদির দর্শনার্থীদের জন্য বিশ্রামাগার নির্মাণের উদ্যোগ নিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

মঙ্গলবার (৮ জুন) দুপুরে জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় উলিপুরের স্থানীয় এনজিও মহীদেব যুব সমাজ কল্যাণ সমিতির অর্থায়নে এবং কারা-কর্তৃপক্ষের সহায়তায় বিশ্রামাগারের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়।

জানা গেছে, জেলা কারাগার কুড়িগ্রামের সামনে কয়েদিদের দর্শনার্থী এবং আসামীদের জামিন বা মুক্তির দিন আসামির আত্মীয়-স্বজন, প্রিয়জন ও পরিজন, যারা তাদের নিতে আসেন তারা কারাগারের সামনে এবং রাস্তার ওপরে দাঁড়িয়ে থাকেন। আদালত থেকে মুক্তি পরোয়ানা আসা ও কারাগার কর্তৃক গ্রহণের পর রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ ও বিভিন্ন পদ্ধতিগত নিয়ম-কানুন থাকায় সেগুলো অনুসরণ করার জন্য অনেকটা সময়ের প্রয়োজন হয়। ওই সময়ে অপেক্ষারত বৃদ্ধ, মধ্যবয়সী মহিলা ও শিশুসহ অনেককেই শীত, গ্রীষ্মের প্রখর রোদে অথবা বর্ষায় কারাগারের মূল ফটকের সামনে ও রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে সময় অতিবাহিত করে। এটি তাদের জন্য যেমন কষ্টকর তেমনিভাবে পীড়াদায়ক আবার অন্যদিকে অপমানজনক ও দৃষ্টিকটু।

বিষয়টি জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রেজাউল করিম-এর নজরে আসলে তিনি সার্বিক অবস্থা অনুধাবন করে মানবিক দিক বিবেচনায় অপেক্ষারত সম্মানিত আত্মীয়-স্বজন বিশেষ করে বয়স্ক মহিলা ও শিশুদের জন্য একটি মানসম্মত বিশ্রামাগার নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেন। যেখানে বসার স্থানসহ রোদ-বৃষ্টি হতে নিষ্কৃতির জন্য মাথার উপরে ছাউনি থাকবে। এছাড়াও কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে হাত ধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়।  

মন্তব্য লিখুন :