হাজীগঞ্জে নিখোঁজের ৬ দিন পর লাশ উদ্ধার

চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার ১২নং দ্বাদশ গ্রাম ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড মালাপাড়া গ্রামে পাটোয়ারী বাড়ির পাশের খালে ৯ অক্টোবর (শনিবার) সুমন পাটোয়ারী (৩০) নামে এক যুবকের লাশ পাওয়া যায়।

ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, মালাপাড়া গ্রামের পাটোয়ারী বাড়ির পাশের খাল থেকে কয়েকদিন যাবত গন্ধ আসতে থাকলে ৯ অক্টোবর (শনিবার) স্থানীয় ফরহাদ নামে এক যুবক খালের আশপাশ দেখার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে খালে কচুরিপানার মাঝে লাশ দেখতে পায়, লাশ দেখে ডাক চিৎকার শুরু করলে আশেপাশের লোক জড়ো হয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো: ইউসুফ পাটোয়ারী ইউসুফ পাটোয়ারী বিষয়টি জানার পর ঘটনাস্থলে এসে নিহতের পরিবারের সাথে কথা বলে পরনে থাকা জামাকাপড় দেখে লাশ শনাক্ত করে।

জানা যায়, নিহত সুমন পাটোয়ারী (৩০) ওই গ্রামের মৃত নানু মাস্টারের ছোট ছেলে। সে ৩ অক্টোবর (রবিবার) থেকে নিখোঁজ ছিলেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৩ অক্টোবর (রবিবার) নিহত সুমন পাটোয়ারী (৩০) কাপড়-চোপড়ের ব্যাগ নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় তারপর থেকেই তিনি নিখোঁজ ছিলেন। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তাকে পাওয়া যায়নি।

পরিবার আরো জানায়, সুমন পাটোয়ারী(৩০) মৃগী রোগে আক্রান্ত ছিল, সে এই মৃগীরোগ এর ফলেই পানিতে পড়ে মারা যেতে পারে বলে ধারণা তাদের। সে মানসিকভাবেও কিছুটা অসুস্থ ছিল বলে জানা যায়।

নাম প্রকাশ করতে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন জানায়, এটি সাধারণ মৃত্যু নয় এটি একটি হত্যাকাণ্ড হত্যার পর তাকে বাড়ির পাশের খালে ফেলে দেওয়া হয়, তার সম্পত্তির জন্য পরিবারের লোকজন তাকে হত্যা করে থাকতে পারে বলে ধারণা তাদের। লাশ উদ্ধার করে পুলিশ পোস্টমর্টেম এর জন্য মর্গে পাঠায়।

হাজিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারুনুর রশীদ জানান, সুমন পাটোয়ারী(৩০) মৃগী রোগে আক্রান্ত, সে মৃগী রোগের কারণে পানিতে পড়ে মারা যেতে পারে। লাশ পোস্টমর্টেম এর জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে রিপোর্ট আসলে বিস্তারিত জানা যাবে।

মন্তব্য লিখুন :