এক টিআইএনে ১০৩ গাড়ি

একটি টিআইএন দিয়ে ১০৩টি প্রাইভেট গাড়ি বিভিন্ন ব্যক্তির নামে রেজিস্ট্রেশন নেওয়া হয়েছে। চট্টগ্রাম বিআরটিএ অফিসে ঘটেছে এমন ভয়াবহ জালিয়াতির ঘটনা।

এসব গাড়ির মালিকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বিআরটিএ’র আঞ্চলিক কার্যালয়কে চিঠি দিয়েছে চট্টগ্রাম কর অঞ্চল। বিধান অনুযায়ী টিআইএন যার নামে কেবল ওই ব্যক্তিই নিজ নামে একাধিক গাড়ির রেজিস্ট্রেশন করতে পারেন। খবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের।

আরও জানা গেছে, গত ২০ সেপ্টেম্বর জাল টিআইএনে গাড়ি রেজিস্ট্রেশন বন্ধে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ও বিআরটিএ সমঝোতা চুক্তি সই করে। এ চুক্তির ফলে এনবিআর বিআরটিএ’র ডাটাবেজে রক্ষিত গাড়ির মালিকের নাম, ঠিকানা, টিআইএনসহ যাবতীয় তথ্য দেখার সুযোগ পাচ্ছে।

চট্টগ্রাম কর অঞ্চল এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে চট্টগ্রাম বিআরটিএতে রেজিস্ট্রেশন নেওয়া গাড়ির তথ্য যাচাই করে এক টিআইএন দিয়ে একাধিক গাড়ি রেজিস্ট্রেশনের প্রমাণ পেয়েছে।

বিআরটিএ’র ডাটাবেজ যাচাই করে দেখা গেছে, তানিয়া জেসমিন নামে মহিলার টিআইএন ব্যবহার করে ১০৩টি গাড়ি বিভিন্ন ব্যক্তির নামে রেজিস্ট্রেশন নেওয়া হয়েছে।

কর অঞ্চল থেকে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তার একটি গাড়ি আছে। এত গাড়ি কিভাবে তার রেজিস্ট্রেশন দেওয়া হলো তা তিনি নিজেও জানেন না। এ বিষয়ে তিনি (তানিয়া) বিআরটিএ’র আঞ্চলিক কার্যালয়ে চিঠি দিয়েছেন।

সূত্র আরও জানায়, জাল টিআইএনে দামি গাড়ি রেজিস্ট্রেশনে একটি সংঘবদ্ধ সিন্ডিকেট রয়েছে। কিছু আমদানিকারক, বিআরটিএ’র কর্মকর্তা-দালালদের তৈরি এ চক্রের মাধ্যমে নিবন্ধন প্রক্রিয়া চলে। মোটা অঙ্কের ঘুস লেনদেনের মাধ্যমে এসব গাড়ির রেজিস্ট্রেশন করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম কর অঞ্চলের কমিশনার সৈয়দ মোহাম্মদ আবু দাউদ বলেন, চট্টগ্রাম বিআরটিএতে নিবন্ধিত গাড়ির তথ্য যাচাই করে ভয়াবহ জালিয়াতির তথ্য পাওয়া গেছে। এ ধরনের আরও কয়েকটি টিআইএন পাওয়া গেছে, যেগুলো দিয়ে একাধিক গাড়ি রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে। এগুলো চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিতে বিআরটিএকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, বিআরটিএ কর্মকর্তাদের সংশ্লিষ্টতা ছাড়া এক টিআইএনে ১০৩ গাড়ি রেজিস্ট্রেশন সম্ভব নয়। যেহেতু চট্টগ্রাম কর অঞ্চল অনিয়ম চিহ্নিত করতে পেরেছে, এখন উচিত হবে এর সঙ্গে যেসব কর্মকর্তা জড়িত তাদের জবাবদিহির আওতায় আনা। পাশাপাশি যেসব মালিক জাল টিআইএনে গাড়ির রেজিস্ট্রেশন নিয়েছেন ভবিষ্যৎ নবায়নের সময় তাদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

মন্তব্য লিখুন :