জরাজীর্ণ কক্ষে চলছে কুবির পোস্ট অফিসের কার্যক্রম

একটি পোস্ট অফিসের গুরুত্ব অজানা নেই কারো।একটা সময় যোগাযোগের সবচেয়ে বড় মাধ্যম ছিল পোস্ট অফিস। বিশ্বায়নের যুগে ই-মেইল, অনলাইন সেবা আর মোবাইল ব্যাংকিংয়ের সুবাদে এই পোস্ট অফিসের গুরুত্ব কমেছে অনেক।

তবে, এখনো দেশের ইউনিয়ন পরিষদসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দেখা মিলে পোস্ট অফিসের। এখনো চিঠিসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র পাঠানো এবং গ্রহণ করার নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত হয় পোস্ট অফিস।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ন্যায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়েরও রয়েছে একটি পোস্ট অফিস। এখানেও সরকারি-বেসরকারি গুরুত্বপূর্ণ চিঠি আসে অনেক। এখান থেকেই শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার খাতা অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকের কাছে পাঠানো হয় আবার গ্রহণ করা হয়। তথ্য আদান-প্রদানসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রশাসনিক কাজ সম্পন্ন হয় এই পোস্ট অফিসের মাধ্যমে। তবে অযত্নে-অবহেলায় ধীরে ধীরে ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে পোস্ট অফিসের কক্ষটি।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের নিচ তলায় রয়েছে এই পোস্ট অফিসের অবস্থান। দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে কক্ষের গায়ে শ্যাওলা পড়ে আছে। ভাঙ্গাচোরা অবস্থায় রয়েছে আসবাবপত্র। দূর্গন্ধের কারণে বসার অবস্থা নেই। অফিসের ভিতরে গিয়ে কক্ষটির জীর্ণদশা দেখলে যে কেউ আতঁকে উঠবে।

কক্ষটির দায়িত্বরত পোস্ট মাস্টার শাহ-আলম সরকার বলেন, শিক্ষকদের পাঠানো শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার খাতা এক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠানোসহ প্রশাসনিক বিভিন্ন চিঠি-কাগজপত্র পাঠানোর মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করা হয় এখান থেকে। অথচ এই কক্ষের দেওয়াল,আসবাবপত্র গুলোর নাজুক অবস্থা। দেওয়াল চুয়ে ময়লা বের হয়। এই ময়লার দূর্গন্ধে সকালে কক্ষে ঢুকতে পারি না। প্রশাসনের কাছে একের পর এক দরখাস্ত দিলে মৌখিক একটি রুম দেওয়া হয়, তবে সেই রুম এখনো হাতে পায়নি আমরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, পোস্ট অফিসের ব্যাপারে আমরা অবগত রয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগঠন বিএনসিসি'র কে ক্যাফেটেরিয়ার উপরে রুম বরাদ্দ হয়েছে। বর্তমানে বিএনসিসি'র ব্যবহৃত কক্ষটি পোস্ট অফিস হিসেবে ব্যবহৃত হওয়ার একটি মৌখিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিএনসিসি তাদের মালামাল নতুন কক্ষে নিয়ে গেলে এই কক্ষটি পোস্ট অফিস কে দেওয়া হবে।

সময় এর কথা জিজ্ঞেস করলে রেজিস্ট্রার বলেন, আগামী ১০-১৫ দিনের মধ্যে বিএনসিসি নতুন জায়গায় স্থানান্তরিত হবে এবং পোস্ট অফিস বিএনসিসির সাবেক কক্ষে স্থানান্তরিত হতে পারবে।

মন্তব্য লিখুন :