হামাস: লজ্জা ঢাকতে গাজায় হামলা

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস দাবি করেছে, নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতেই অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার ওপর হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল।

হামাসের মুখপাত্র হাজেম কাসেম গতকাল মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন।

এর আগে সোমবার রাতে গাজার খান ইউনুস শহরে ভয়াবহ বিমান হামলা চালায় ইসরায়েল।

হাজেম কাসেম বলেন, নিজেদের অক্ষমতা ও পরাজয় আড়াল করার জন্য গাজায় সর্বশেষ এই হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল।

এদিকে ইসরায়েল দাবি করছে, তারা খান ইউনুস শহরে হামাসের একটি রকেট তৈরির কারখানায় বিমান হামলা চালিয়েছে। গাজা থেকে ইজরাইলের ভেতরে আগুনে বেলুন ছোড়ার অভিযোগে গাজা উপত্যকায় ওই হামলা চালানো হয়।

গত সোমবার ভোরে উত্তর ইসরায়েলের উচ্চ-নিরাপত্তাযুক্ত গিলবোয়া কারাগার থেকে ৬ ফিলিস্তিনি সুড়ঙ্গপথে পালিয়ে যেতে সক্ষম হন। এ ঘটনায় ইসরায়েলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রশ্নের মুখে পড়ে।

কারাগার সূত্র জানায়, ওই বন্দীরা তাদের সেলের টয়লেটের ফ্লোরে খুঁজে পাওয়া এক সুড়ঙ্গপথে পালিয়ে যায়। ২০০৪ সালে কারাগারটি নির্মাণের সময় ওই সেলের টয়লেট পর্যন্ত এই সুড়ঙ্গ করা হয়েছিল। বন্দীদের পালানোর এ ঘটনাকে ‘ভয়াবহ’ বলে উল্লেখ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেত।

এদিকে, ইসরায়েলের কারাগার থেকে ৬ ফিলিস্তিনি বন্দীর সুড়ঙ্গপথে পালানোর ঘটনায় পশ্চিম তীর, গাজা ও ইসরায়েলি ভূখণ্ডে বাস করা সকল ফিলিস্তিনিরা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফিলিস্তিনিরা পালিয়ে যাওয়া এই বন্দীদের ‘বীর’ হিসেবে প্রশংসা করেন। পালিয়ে যাওয়ার মাধ্যম ওই সুড়ঙ্গকে বলা হচ্ছে মুক্তির সুড়ঙ্গ।

মন্তব্য লিখুন :