ধূলোর নগরীতে ত্বকের যত্ন

ধূলোর শহর যখন ঢাকা, ঠিক তেমনি আজকাল ছোট খাটো ধুলোর আবাসস্থল আমাদের ত্বক। ধূলো আর অপরিমিত ঘুম এবং জাংক ফুড খাওয়ার অভ্যাসে ত্বক হয়ে পড়েছে আরও বেশি রুক্ষ।

আর এইসবের ছাপই আমাদের ত্বকে ফুটে ওঠে। ত্বক হয়ে ওঠে ম্যাড়ম্যাড়ে রুক্ষ। ত্বকের এই রুক্ষতা দূর করতে আমরা দোকান থেকে বিউটি প্রোডাক্ট কিনে এনে ব্যবহার করি। কিন্তু কী ব্যবহার করছি, কেন ব্যবহার করছি, এই প্রভাব আমাদের ত্বকে কী পড়বে, সেই সব ভালো করে না জেনেই অনেক ক্রিম লোশন ব্যবহার করে ফেলি আমরা।

এতে কিন্তু হিতে বিপরীত হয়। ত্বক ভালো হওয়ার বদলে এই সব বিউটি প্রোডাক্টের রাসায়নিকের প্রভাবে ত্বকে আরও বেশি করে সমস্যা দেখা দেয়।


যা করবেন প্রতিদিন

১. মুখ ধোবেন দিনে তিনবার। যারা বাইরে কাজ করেন, তারা ফেসওয়াশ দিয়ে ধুতে পারবেন।

২. রাতে ত্বক অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার লাগানো বাধ্যতামূলক।

৩. যখনই ফল খাবেন, অবশিষ্ট অংশ মুখে লাগান। আঙুর ছাড়া।

৪. বাইরে গেলে ছাতা, সানগ্লাস    ব্যবহার আবশ্যক।

৫. ত্বকের ধরন বুঝে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য তেলবিহীন, পাউডার সানস্ক্রিন বেছে নিন। তবে সানস্ক্রিন পাঁচ ঘণ্টার বেশি রাখবেন না। মুখ ধুয়ে আবার লাগান। রাতের বেলা বা যখন রোদে থাকবেন না, তখন সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন না।

৫. পানি খান বেশি করে।
 
যেসকল কাজে বিরত থাকবেন
১. সম্ভব হলে রোদে বের হবেন না।
২. তৈলাক্ত খাবার খাবেন না। অনেকের তৈলাক্ত খাবার থেকে পেটে গ্যাস হওয়ার প্রবণতা থাকে। এতে ত্বকে সরাসরি নেতিবাচক প্রভাব পড়ে।

স্বাভাবিক তাপমাত্রা
ত্বকের স্বাভাবিক তাপমাত্রা বজায় রাখা জরুরি এ সময়। তাপমাত্রা বেড়ে গেলে ত্বক কালো হয়ে যায়, ব্রণ হয় ও অ্যালার্জি হবে। প্রতিদিন বরফ থেরাপি দরকার এ কারণেই। সমপরিমাণ গোলাপজল ও পানি মিশিয়ে বরফ তৈরি করুন।

তবে কাপড়ের ওপর বরফ রেখে মুখে ঘষবেন না। এতে ত্বকের ক্ষতি হবে। বরফের পেছন দিকটা মোটা কাপড় দিয়ে ধরে নিতে পারেন। ত্বকের ওপর বরফের ঠাণ্ডা পরশ সরাসরি লাগাতে হবে।

ত্বকের যত্ন
১. জয়তুন তেল একটি প্রাকৃতিক সমাধান। এতে রয়েছে ভিটামিন ‘ই’ যা ত্বকের জন্য উপকারী। এর সাথে যদি যোগ হয় দই আর মধু, তাহলে তো আর কথাই নেই।
দেখে নেয়া যাক, ত্বকের যত্ন যেভাবে নিবেন -
* ১/৩ এক কাপ দই
* ১/৪ এক কাপ মধু
* দুই চা-চামচ জয়তুন
সবগুলো উপাদান একত্রে নিয়ে ভালোভাবে মিক্স করে নিন। ঘন হয়ে এলে পুরো মুখে মাখিয়ে ফেলুন। ২০ মিনিট রেখে তারপর কুসুম। গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রতি সপ্তাহে মাত্র ১ বার এই পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

২. বাইরে থেকে আসার পরে পরিষ্কার পানি ও আর্দ্রতা যুক্ত সাবান দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এতে করে ত্বকের আর্দ্রতা ফিরে আসবে। আপনার ত্বকের ধরন বুঝে সাবান বেছে নিন।

৩. মুখ ধোয়ার পরে ত্বকে ভেজা ভাব থাকতেই কোনো ক্রিম দেওয়া যেতে পারে। তবে খেয়াল রাখতে হবে তা যেন বেশি তৈলাক্ত না হয়ে যায়।

৪. অফিসে বা বাসায় আগে থেকে শসার রস ব্লেন্ড করে রাখা যেতে পারে। বাইরে থেকে এসে তুলোতে সেই রস লাগিয়ে পরিষ্কার করা যেতে ত্বক।

এছাড়াও প্রতিদিন কমপক্ষে ৪/৫ লিটার পানি পান করুন। এবং কম করে হলেও ৩ বার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে মুখ পরিষ্কার রাখবেন।
ব্যাস সবই তো জানা হয়ে গেল। আর দেরি না করে এখনি আপনার ত্বককে ধুলো ও রোদ থেকে বাচাতে অনুসরণ করুণ এই উপায় গুলো।

মন্তব্য লিখুন :