মে মাসে আসছে ঝড়-বৃষ্টি, থাকবে গরমও

এপ্রিলের মত মে মাসেও দাবদাহ অব্যাহত থাকবে তবে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এমনটাই জানিয়েছে বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের আবহাওয়া অধিদপ্তর।

শনিবার (১ মে) বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের আবহাওয়া অধিদপ্তরে পর্যবেক্ষণে এ পূর্বাভাস পাওয়া যায়।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের একজন আবহাওয়াবিদ জানান, বছরের প্রথম চার মাসে স্বাভাবিকের চেয়ে ৯১ শতাংশ কম বৃষ্টি হয়েছে। ফলে গত মার্চ ও এপ্রিল মাসজুড়ে দেশজুড়ে প্রচণ্ড গরমের তাপদাহ দেখা গেছে। আর এই গরম মে মাসেও থাকবে। তবে মে মাসে ঝড় বৃষ্টির প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে।

আবহাওয়াবিদ আরও জানান, বৃষ্টির পর আবার দাবদাহ শুরু হবে। তবে তার আগে মে মাস জুড়েও ঝড়-বৃষ্টি বেড়ে কিছুদিন গরম কমবে।

বাংলাদেশ ও ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের পর্যবেক্ষণ বলছে, বঙ্গোপসাগরের তাপমাত্রা ২৫ থেকে ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকছে। সাধারণত সাগরের তাপমাত্রা ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে উঠলে নিম্নচাপ ও ঘূর্ণিঝড় তৈরি হয়। ফলে চলতি মাসের প্রথম দুই সপ্তাহে কোনও ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা নেই। তবে মাসের শেষদিকে বঙ্গোপসাগরের তাপমাত্রা কিছুটা বেড়ে একাধিক নিম্নচাপ তৈরি হতে পারে। এর মধ্যে একটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। তবে সেটি বাংলাদেশে আঘাত করবে কি না তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আজকের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, শনিবার দিবাগত রাতে দেশের বিভিন্ন স্থানে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যেতে পারে। রোববার দেশের বেশির ভাগ স্থানে ঝড়-বৃষ্টির আশঙ্কা আছে। বৃষ্টির কারণে দেশের বেশির ভাগ স্থানে গরম কিছুটা কমতে পারে। তবে রাঙামাটি, কুমিল্লা, নোয়াখালী, রাজশাহী, যশোর, চুয়াডাঙ্গাসহ দেশের অনেক জায়গায় দাবদাহও বয়ে যেতে পারে।

মন্তব্য লিখুন :