৫ গুন বুদ্ধিসম্পন্ন FARBOT -3

ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী এ এস ফারদিন নিজ খরচে তৈরি করেছে সোশ্যাল- সার্ভিসিং FARBOT-3।

১৪ই মার্চ প্রোজেক্ট FARBOT-3 নিয়ে পোস্ট করেন। পোস্টে তিনি লেখেন, অবশেষে তৈরি হলো FARBOT-3। নিজ অর্থায়নে প্রোজেক্টের কাজ সম্পন্ন করেছেন ফারদিন।

এছাড়া এর আগেও ফারদিন দেশে বেশ কয়েকটি বড় প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করেছেন।

ফারদিন জানান, কয়েক বছর আগে চীন থেকে ২ টি রোবট বাংলাদেশে আনা হয়েছিলো,  সেগুলো থেকে ৫ গুন বুদ্ধিসম্পন্ন FARBOT-3।

ফারদিন আরও বলেন, কারো প্রতি তার অভিযোগ নেই, নিজের কাছে এইটুকুতেই সন্তুষ্টি। নিজের  অর্থেই এর ৩ টি ভার্সন তৈরি হয়েছে, অনুদানের টাকায় নয়।

২০১৮ সালের ১০ই আগস্ট রোবটিক্স নিয়ে তার টাইমলাইন থেকে একটি পোস্ট করেছিলেন। পোস্টের মূল বক্তব্য ছিল 'ভাবছি রোবটিক্স টা ছেড়ে দিবো।'

এরপর বিভিন্ন ম্যাগাজিন, অনলাইন নিউজ পোর্টাল এবং পত্রিকায় তার ভাইরাল হওয়া পোস্টটি নিয়ে রীতিমতো পজিটিভ কথা তুলে ধরা হয়।

উল্লেখ্য, ভাইরাল হওয়া পোস্টটিতে সরকারের আইসিটি থেকে কমেন্ট করে সরকারি সাহায্যের কথা আশ্বাস দেওয়া হয়। তিন বছর পেরিয়ে গেল সেই ফান্ড আর দেয়নি।


মন্তব্য লিখুন :